যেখানে মনের ক্ষুধা আর পেটের ক্ষুধা দুই মিটবে

পুরান ঢাকার বেচারাম দেউরীতে অবস্থিত প্রায় দেড়শ বছর পুরানো “ইমরান্স হ্যারিটেজ”। পুরানো এই জমিদার বাড়ী টী (অনেকে সাহেব বাড়ী বলে)।

অন্দরমহলে ঢুকতেই চোখে পড়বে কাচের নকশাদার কারুকাজ করা স্তম্ভ, শত বছর পুরানো আসবাব, অসাধারণ কিছু পেইন্টিং, দুই শ বছরের পুরোনো পবিত্র কোরআন শরিফ, মরচে পড়া তলোয়ার, হাতে লেখা ফারসি পুস্তক, পৃথিবীর নানা দেশ থেকে সংগ্রহ করা আতরদা

পাশেই খাবার ঘর। পাতানো টেবিলে একটা জমিদারী ভাব আছে।  জানা যায় এই খাবার ঘরে বসেই মিটীং করেছেন এবং খেয়েছেন– জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান, নেতাজী সুবাস চন্দ্র বসু, কবী কাজী নজরুল ইসলাম, শিল্পী এস এম সুলতানসহ বর্ষীয়ান নেতা এবং শিল্পীরা.

এক বেলা খেতে জন প্রতি খরচ পড়বেঃ ৬০০ টাকা

যেয়ে খেতে হলে জানাতে হবেঃ ২-৩ দিনে আগে.

যতজন যেতে পারবে একেবারেঃ সর্বনিম্ন পাঁচ জন এবং সর্বোচ্চ ২০ জন.

যে পেইজে নক দিতে জানাতে হবেঃ Lunch at Emran’s Heritage Home.

ঠিকানাঃ বেচারাম দেউড়ী, নান্না মিয়ার বিরিয়ানীর ডান পাশের ছোট রোড (নুরবক্স লেইন) টা ধরে একটূ আগালেই হাতের ডানে।

ইয়ুথ ভিলেজ/নিজস্ব প্রতিবেদক/সিফাত নার্গিস