কোয়ালিফায়ারে হেরে গেল সাকিবের বার্বাডোজ

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (সিপিএল) চলমান মৌসুমে বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টসকে প্লেঅফে নেওয়ার পেছনে বড় অবদান রাখেন সাকিব আল হাসান। তিনি যোগ দেওয়ার পরই দলের পরিবর্তন চোখে পড়ে। তবে টানা তিন ম্যাচের পর চতুর্থ ম্যাচে ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারলেন না সাকিব। দলও কোয়ালিফায়ার ওয়ানে হেরেছে।

রোববার বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাতে প্রোভিডেন্সে মুখোমুখি হয় গ্রুপ পর্বের শীর্ষ দল গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স ও দ্বিতীয় দল বার্বাডোজ ট্রাইডেন্টস। আর ৩০ রানে এ ম্যাচ জিতে সরাসরি ফাইনালে পৌঁছে গেছে গায়ানা। তবে বার্বাডোজ হারলেও ফাইনালে যাওয়ার আরেকটি সুযোগ পাচ্ছে। এলিমিনিটর ম্যাচে জয় পাওয়া ত্রিনাবাগো নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ফের খেলবে বার্বাডোজ।

এদিন প্রথমে ব্যাট করা গায়ানা ব্র্যান্ডন কিংয়ের ঝড়ো সেঞ্চুরিতে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ২১৮ রান করে। জবাবে সবকটি ওভার খেললেও ৮ উইকেট হারিয়ে ১৮৮ রানের বেশি করতে পারেনি বার্বাডোজ। ২১৯ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে বার্বাডোজের কোনো ব্যাটসম্যানই হাফসেঞ্চুরির দেখা পাননি। সর্বোচ্চ ২৬ বলে জোনাথন কার্টার ৪৯ রান করেন। ৩৬ রান করেন অ্যালেক্স হেলস। অন্য কোনো ব্যাটসম্যান বড় সংগ্রহ করতে না পারায় শেষ পর্যন্ত হার মানতে হয়। সাকিব তিনে নেমে ৯ বলে ৫ রান করে শোয়েব মালিকের বলে বিদায় নেন।

গায়ানা বোলারদের মধ্যে রোমারিও শেফার্ড সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন। এছাড়া ইমরান তাহির ও ওডেন স্মিথ দুটি করে উইকেট দখল করেন। টসে জিতে এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বার্বাডোজ বোলারদের তুলোধুনো করে সেঞ্চুরি তুলে নেন কিং। শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকা এই ব্যাটসম্যান ৭২ বলে ১০টি চার ও ১১টি ছক্কায় ১৩২ করেন। ৩২ রান আসে অধিনায়ক মালিকের ব্যাট থেকে।

বার্বাডোজ বোলারদের মধ্যে হেইডেন ওয়ালশ দুটি উইকেট পান। জেসন হোল্ডার পান একটি। সাকিব ৪ ওভারে খরুচে বল করে কোনো উইকেট না পেয়ে ৪৬ রান দেন।

ইয়ুথ ভিলেজ/নিজস্ব প্রতিবেদক